স্টাফ রিপোর্টারঃ প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস সঙ্কট মোকাবিলায় টাংগাইলের দেলদুয়ার উপজেলায় তথা টাংগাইল জেলায় অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ ও চিকিৎসা সেবা দিয়ে এক নজীর বিহীন উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করে যাচ্ছেন দেলদুয়ার উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও বাংলাদেশ প্রাইভেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ওর্নাস এসোসিয়েশনের সভাপতি ও সেবা ক্লিনিক এন্ড হসপিটালের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব লায়ন এম শিবলী সাদিক।

তিনি সমাজও চিকিৎসা সেবায় অভূতপূর্ব সাফল্য অর্জন করার জন্য মাদারতেরেসা স্বর্ণ পদক,মানবাধিকার স্বর্ণপদক ও জাতীয় সাংবাদিক রিপোর্টার স্বর্ণপদ লাভ করেন।তিনি একাধারে টাংগাইল জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনিবাহী সদস্যদেলদুয়ার উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক,বাংলাদেশ প্রাইভেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এসোসিয়েশন সভাপতি,সেবা ক্লিনিক এন্ড হসপিটালের চেয়ারম্যান, টাংগাইল জেলা চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক,জেলাপাবলিক লাইব্রেরী টাংগাইল ক্লাবের, শিল্পকলা একাডেমির, রাইফেল ক্লাবের সদস্য,জেলা রেড ক্রিসেন্টের আজীবন সদস্য,বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর গোল্ডক্লাবের সদস্য এবং আন্তর্জাতিক লায়ন ক্লাবের লিডার হিসেবে বাংলাদেশ অত্যান্ত যোগ্যতার সাথে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে আশঙ্কায় মানুষ যখন অজানা আশঙ্কায় নিমজ্জিত তখনও তিনি নিজের জীবন বাজি রেখে মাঠেঘাটে প্রতিনিয়তই খাদ্য সামগ্রী ও স্বাস্থ্য সুরক্ষার সামগ্রী বিতরণ করে যাচ্ছেন। তিনি নিজস্ব তহবিল থেকে নিজের হাতে নগদ অর্থসহ পর্যান্ত পরিমাণে চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। জীবন বিপন্ন হতে পারে জেনেও মানুষের জন্য কাজ করে যাওয়ার বিষয়টিকে মহানুভবতা সর্বোচ্চ স্বীকৃতি দিয়েছেন উপজেলাবাসী।

দেশের এ ক্লান্তিকালে টাংগাইল-৬ আসনের সাংসদ আহসানুল ইসলাম টিটু এমপি মহোদয়ের নেওয়া সকল পদক্ষেপ সমূহের প্রশংসা করে তিনি বলেন আমাদের এমপি একজন সৎ,সুশিক্ষিত সাদামনের মানুষ,ওআমার আস্থাও ভালোবাসার ঠিকানা।তাঁর সততাও সাফল্যের গুণে দেলদুয়ার উপজেলার আওয়ামীলীগের সকল নেতা-কর্মীসহ সুশীল সমাজও প্রশাসনকে একটি পতাকা তলে আবদ্ধ করতে পেরেছেন।দেলদুয়ার উপজেলায় কোন মানুষ যাতে না খেয়েও বিনা চিকিৎসায় মারা না যায় সেই লক্ষ্যে তিনি নিজস্ব তহবিল থেকে দল ও প্রশাসনের সমন্বয়ে প্রতিটি মানুষের ঘরেঘরে খাদ্যসামগ্রী ও চিকিৎসার সুরক্ষা নিশ্চিত করে যাচ্ছেন।আমি দেলদুয়ার উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে তাঁর মতো এমন একজন মহাননেতার সঙ্গে কাজ করতে পেরে নিজেকে অনেক গৌরববোধ করছি ও তাঁর কাছে কৃতজ্ঞতা স্বীকার করছি।আমার মতে আমাদের এমপি মতো যদি সারাদেশের সংসদ সদস্যরা কাজ করেন,তাহলে অচিরেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হবে।

তিনি সমাজ ও চিকিৎসা সেবার পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত মাদক ও দুনীতি বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি বাস্তবায়ন করা জন্য নিরলসভাবে পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে